ফরেক্স চার্ট কি ? ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট প্যাটার্ন বিশ্লেষণ

ফরেক্স হচ্ছে “ফরেন এক্সচেঞ্জের” বা একটি মুদ্রা বিনিময় বাজার। বিভিন্ন কারেন্সি লেনদেনের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফাইনান্স্যিয়াল মার্কেটের মধ্যে একটি হচ্ছে ফরেক্স। এএটি এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ট্রেড এবং বিনিয়োগে সহায়তা করে। এখানে প্রত্যেক দিন কোটি কোটি ডলার লেনদেন হয়। বিশ্বের যেকোনো জায়গা থেকে এই মার্কেটে ট্রেড করা যায়। যারা অনলাইনের মাধ্যমে ফরেক্সে মুদ্রা বিনিময় করে তারা ফরেক্স চার্টের মাধমে মার্কেট দেখে থাকে ।

ফরেক্স চার্ট কি ?

ফরেক্স চার্ট হচ্ছে একটি চিত্র/গ্রাফিক্স যা একজন ট্রেডার ফরেক্স মার্কেটের বিভিন্ন পেয়ারের মূল্য দেখে থাকে । ফরেক্স মুদ্রার চার্টগুলি ফরেক্স চার্টিং সফটওয়্যারের মধ্যে দেখানো হয় । যা যেকোনো ফরেক্স ব্রোকারের সাথে ট্রেডিং একাউন্ট খোলার পর বিনামূল্যে পাওয়া যায় । সাধারনত ফরেক্স চার্টে দুটি মুদ্রার মধ্যে সম্পর্ক দেখানো হয়ে থাকে । ফরেক্স চার্টের মাধ্যমে মুদ্রা বিনিময় ছাড়াও স্টক ট্রেডিংও করা সম্ভব।

ফরেক্স চার্টে বিভিন্ন টাইম ফ্রেমে দেখানো হয় । যেমন- ১ মিনিট, ৫ মিনিট, ১৫ মিনিট, ৩০ মিনিট, ১ ঘন্টা, ৪ ঘন্টা, ১ দিন, ১ সপ্তাহ এবং ১ মাস। ট্রেডারা তাদের সুবিধামত তারা চার্টে টাইম সেট করতে পারে । বিভিন্ন প্রকার এ্যানালাইসিসের জন্য ট্রেডারের কাছে টাইম ফ্রেম খুবই গুরুত্বপূর্ন । মার্কেট বর্তমানে বিভিন্ন ধরণের চার্ট রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হলোঃ

  • লাইন চার্ট
  • ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট
  • বার চার্ট
  • টিক চার্ট
  • কাগি চার্ট
  • রেনকো চার্ট
  • হেইকিন-আশি চার্ট
  • পয়েন্ট এবং ফিগার চার্ট

– এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত এবং পরিচিত চিত্র / চার্টের সম্পর্কে নিম্নে তুলে ধরা হলো ।

সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ফরেক্স চার্ট

সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ফরেক্স চার্ট

লাইন চার্টঃ লাইন চার্টের মূলত লাইনের সংযোগের মাধ্যমে মূল্যের ট্রেন্ড দেখানো হয়। যার মাধ্যমে ফরেক্স মার্কেটের সার্বিক বাজার অবস্থা এবং সাপোর্ট-রেসিস্টেন্স লেভেল দেখা যায়। লাইন যুক্ত করা হয় এককালের উচ্চমূল্যের সাথে পরবর্তীকালের উচ্চমূল্যে, নিন্মমুল্যের সাথে নিন্মমুল্যের ইত্যাদির মাধ্যমে। যদি আপনার পছন্দের মুদ্রা ট্রেন্ড জানতে চান তাহলে এই চার্ট ব্যবহার করতে পারেন।

বার চার্টঃ বার চার্টে আমাদের একটি নির্দিষ্ট সময়ের মুদ্রার মূল্য বারের মাধ্যমে দেখানো হয়। আপনি যদি একদিনের চার্ট দেখেন তাহলে একদিনের মূল্যের জন্য একটি বার দেখানো হবে আবার ১৫ মিনিটের চার্টে প্রতি ১৫ মিনিট হিসেবে একটি বার দেখাবে এবং ৩০ মিনিটের চার্টে প্রতি ৩০ মিনিট হিসেবে একটি চার্ট ইত্যাদি । আমাদের ট্রেডিং সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য একটি বার থেকে সর্বমোট ৪ টি তথ্য নিতে পারি। বারের শুরু, নিম্ন, উচ্চ এবং বন্ধ।

ক্যান্ডেলস্টিক চার্টঃ ক্যান্ডেলস্টিক চার্টে বার চার্টের মতো তথ্য প্রদর্শন করা হয় কিন্তু এর মধ্যে গ্রাফিক এর কাজ থাকে বলে এতে ট্রেড করতে ট্রেডারদের ভাল লাগে। এই চার্টে বার চার্টের মতো উচ্চ এবং নিম্ন মূল্য দেখানো হয় ভারটিকাল লাইনের মাধ্যমে। একটি বারে সাধারণত দুইটি ভারটিকাল লাইন থাকে, বারের উপরের লাইন কে বলা হয় উচ্চ ছায়া বা upper shadow এবং নিচের লাইনকে বলা হয় নিম্ন ছায়া বা lower shadow । ক্যান্ডেনলস্টিকের এর মাঝখানে বড় ব্লকটি হচ্ছে শুরু এবং বন্ধ প্রাইস। একে বলা হয় প্রকৃত ক্যান্ডেল বা real Body ।

বর্তমান ফরেক্স ট্রেডিং এ এই তিনটি চার্ট সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়, বিশেষ করে ক্যাডেলস্টিক চার্ট অন্যতম ।

ক্যান্ডেলস্টিক চার্টপ্যাটার্ন বিশ্লেষণঃ ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট প্রথম পশ্চিমা বিশ্বের কাছে তুলে ধরেন স্টিভ নিসন তার জনপ্রিয় বই “জাপানিস ক্যামডেলস্টিক চার্টিং টেকনিকস” বইটিতে যা প্রকাশ পায় ১৯৯১ সালে। ক্যান্ডেলস্টিক চার্টের মাধ্যমে এই বিশ্লেষণ করা হয়। এই চার্টগুলো একধরণের টেকনিক্যাল টুলস এর মতো একাধিক টাইম ফ্রেমের তথ্য একক প্রাইস বারে দেখায়। এর মাধ্যমে চিরাচরিত শুরু-উচ্চ (open-high), নিম্ন-বন্ধ (low-close), সহজ লাইন যা ক্লোসিং প্রাইসের ডটের সাথে যুক্ত করে ট্রেড করা থেকে অনেক সহজ উপায়ে ট্রেড করা যায়।

রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট প্যাটার্ন বিশ্লেষণ

রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট প্যাটার্ন বিশ্লেষণ

ক্যান্ডেলস্টিক একধরনের প্যাটার্ন তৈরি করে যা প্রাইস এর দিকনির্দেশনা বুঝতে সাহায্য করে। এখন খুব সহজেই কিছু প্যাটার্ন আছে যা শনাক্ত করা যায়, যেমনঃ Three Black Crows বা থ্রি ব্ল্যাক ক্রো , বিয়ারিশ ব্ল্যাক ডার্ক ক্লাউড কভার বা  bearish dark cloud cover,  ইভিনিং স্টার, এছাড়াও একক বারের কিছু প্যাটার্ন নির্ণয় করা হয়েছে, যেমনঃ পিন বার, ডজি, হ্যামার ইত্যাদি যা স্বল্প দৈর্ঘ্য ট্রেডিং এর জন্য উপকারি। ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন বিশ্লেষণের উল্লেখযোগ্য কিছু প্যাটার্ন রয়েছে যা অধিকাংশ ট্রেডার সফলতার জন্য ট্রেড করতে ব্যবহার করে।

  • Pin Bar ( পিন বার )
  • Three Line Strike (থ্রি লাইন স্ট্রাইক )
  • Two Black Gapping ( টু ব্ল্যাক গ্যাপিং )
  • Three Black Crows ( থ্রি ব্ল্যাক ক্রো )
  • Evening Star  ( ইভিনিং স্টার )
  • Abandoned Baby ( এবানডন্ড বেবি )
  • Engulfing Bar  ( এঙ্গালফিং বার )

ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট প্যাটার্ন মূলত ধারণার উপর ভিত্তি করে ট্রেড করা হয়, যেখানে কিছু প্যাটার্ন ধারাবাহিকভাবে মার্কেটে আবির্ভূত হয় এবং এর পরবর্তী ফলাফলও অতীতের মতো হওয়ার আশাবাদ রাখে। চার্ট প্যাটার্ন এর একটি প্রতিষ্ঠিত সংজ্ঞা এবং মানদণ্ড আছে। তবে কোনও প্যাটার্নই শতভাগ নিশ্চয়তা দিতে পারে না। কিছু উল্লেখযোগ্য চার্ট প্যাটার্ন এর বর্ণনা দেওয়া হলো যেগুলো বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ভালো ফলাফল দিয়ে আসছে ।

ডাবল টপ অথবা ডাবল বটমঃ মার্কেটে এই দুটি প্যাটার্ন অনেক গুরুত্বপূর্ণ প্যার্টান। টেকনিক্যাল বিশ্লেষণের মধ্যে খুব কম সময় এই চার্ট প্যার্টান দেখা যায়। ডাবল টপ এবং ডাবল বটম উভয়ই রিভার্সাল সিগন্যাল দিয়ে থাকে।

ডাবল টপ অথবা ডাবল বটম

ডাবল টপ এবং ডাবল বটম

মার্কেটের এমন রুপ দেখা গেলে ধারণা করা হয় মুদ্রার মূল্য বিপরীত দিকে যাবে।

হেড এন্ড শোল্ডারঃ হেড এন্ড শোল্ডার একটি কার্যকরী ট্রেডিং সিস্টেম যা অধিকাংশ ক্ষেত্রে সফলভাবে কাজ করে ফরেক্স মার্কেটে। এই ধরণের নামকরণের কারণ হচ্ছে এই প্যাটার্নে একটি বড় টপ থাকে এবং অপেক্ষাকৃত দুটি ছোট টপ থাকে। বড় টপকে হেড বলা হয় এবং ছোট টপগুলোকে শোল্ডার বলা হয়। এটিও একটি মূল্য রিভার্সালসিগন্যাল অর্থাৎ মার্কেট উল্টো দিকে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রকাশ করে।

হেড এন্ড শোল্ডার

হেড এন্ড শোল্ডার

উপরুক্ত প্যাটার্ন ছাড়াও আরো কয়েকটি উল্লেখযোগ্য প্যাটার্ন হচ্ছে কাপ এন্ড হ্যান্ডেল, ট্রায়াঙ্গেল, থ্রিপল টপ, থ্রিপল বটম ইত্যাদি।

ইনডিকেটর ট্রেডিংঃ ইনডিকেটর মার্কেটের মূল্যের তথ্যের উপর ভিত্তি করে সম্ভাব্য Buy-Sell অবস্থার জানান দেই। ইনডিকেটর ট্রেডিং একটি স্বয়ংক্রিয় ট্রেডিং প্রক্রিয়া যেখানে ট্রেডারকে নিজে থেকে তথ্য বিশ্লেষণ করতে হয় না। মার্কেটে কিছু উল্লেখযোগ্য টেকনিক্যাল ইনডিকেটর আছে যা অধিকাংশ ট্রেডাররাই তাদের ট্রেডিং এ ব্যবহার করে থাকে এবং সফল হন। যেমনঃ মুভিং অ্যাভারেজ , এমএসিডি, , আরএসআই, বলিঙ্গার ব্যান্ড, পেরাবলিক এসএআর ইত্যাদি।

বর্তমানে বেশিরভাগ ট্রেডার চার্ট বিশ্লেষণের মাধ্যমে ট্রেডিং করে থাকেন। কেননা এটি ফান্ডামেন্টাল বিশ্লেষণের তুলনায় সহজ এবং বেশি কার্যকরী। সুতরাং আপনি ভালোভাবে শিখে নিজের ট্রেডিংকে এগিয়ে নিতে পারেন । কোনো প্রশ্ন থাকলে বা আপনার মতামত নিচের কমেন্ট বক্সে বা ইনবক্স করতে পারেন। যতা স্বাধ উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো ‘ইনশাআল্লাহ’।

Leave a Reply