ফরেক্স মার্কেট কি ? আমরা কিভাবে ফরেক্স মার্কেটের ভাষা বুজবো ?

ফরেক্স (Forex) শব্দটি এসেছে Foreign Exchange শব্দদ্বয় থেকে। যার বাংলা অর্থ দাড়ায় বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময়। আমরা জানি, ফরেক্স হল এমন একটি ট্রেডিং মার্কেট যেখানে একটি মুদ্রার বিপরিতে আরেকটি মুদ্রা ক্রয়-বিক্রয় করে লাভ করা যায়। আমাদের সকলেরই ফরেক্স মার্কেট নিয়ে ধারণা রয়েছে , তারপরেও আলোচনার স্বার্থে এবং একেবারে নভিসদের জন্য উদাহরণ সহ ফরেক্স মার্কেট নিয়ে আলোচনা করবো। সেই সাথে ফরেক্স মার্কেটের ভাষা নিয়ে বিশ্লেষণ করবো। তবে, চলুন শুরু করা যাক…

ফরেক্স মার্কেট কি ? :- ফরেক্স (Forex) শব্দটি এসেছে Foreign Exchange শব্দদ্বয় থেকে। যার বাংলা অর্থ দাড়ায় বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময়। আন্তর্জাতিক বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় মার্কেটকেই মূলত ফরেক্স মার্কেট হিসেবে ধরা হয়। এক দেশের মুদ্রা থেকে অন্য দেশের মুদ্রার বিনিময় করাই ফরেক্সের প্রধান কাজ। সরকারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে মূলত বৈদেশিক মুদ্রার মূল্যের পরিবর্তন হয়ে থাকে। এছাড়াও কিছু বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানও পণ্য এবং সেবা আমদানি-রপ্তানির মাধ্যমে অর্জিত মুদ্রা দেশিয় মুদ্রায় পরিবর্তন করে থাকে। যদিও এর পরিমান মোট লেনদেনের মাত্র ৫%। বাকি ৯৫% লেনদেন হয় ফরেক্স ব্রোকারদের মাধ্যমে যারা বৈদেশিক মুদ্রা লেন-দেন করে কিছু মুনাফা অর্জন করে। আপনি খুব সহজেই ফরেক্স এর মাধ্যমে একটি দেশের মুদ্রার বিনিময়ে অন্য একটি দেশের মুদ্রা ক্রয় অথবা বিক্রয় করতে পারবেন। এই ফরেক্স মার্কেটে বিশ্বের সব উল্লেখযোগ্য অর্থনৈতিক মুদ্রা সংযুক্ত আছে। এইসব মুদ্রার মূল্য প্রতিনিয়তই পরিবর্তন হয়ে থাকে এবং এই মুদ্রার মান পরিবর্তনকেই কেন্দ্র করে মূলত ফরেক্স ট্রেডিং ব্যবসা হচ্ছে। আপনিও খুব সহজেই এই পরিবর্তনশীল মুদ্রার মানকে ব্যবহার করে লাভবান হতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আজকের দিনে মার্কিন ডলারের মান ধরে নিলাম ৮৫ টাকা এবং ব্রিটিশ পাউন্ডের মান ১০০ টাকা। আপনি আজকে ৮৫ মার্কিন ডলার দিয়ে ১০০ পাউন্ড ক্রয় করলেন। পরবর্তীতে ব্রিটিশ পাউন্ডে দাম বেড়ে গেলে। এখন আপনি ওই ১০০ পাউন্ড বিক্রয় করে ৯০ মার্কিন ডলার পেতে পারবেন। এভাবেই আপনি ফরেক্সে মুদ্রা ক্রয়-বিক্রয় করে আয় করতে পারবেন।

কিভাবে ফরেক্স মার্কেটের ভাষা বুজবো ? :- ফরেক্সের মার্কেটের ভাষা বলতে মূলত জাপানি ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট পেটার্নের ভাষাকে বুজবো। চার্ট পেটার্ন নিয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে পরবর্তীতে একটি পোস্ট করবো। এখন আসি ফরেক্সের মার্কেটের ভাষা নিয়ে। জাপানি ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট পেটার্নে প্রতিটা ক্যান্ডেল এক একটি অর্থ দিয়ে থাকে, আবার কখনো একের অধিক কয়েকটি ক্যান্ডেল মিলেও অর্থ প্রদান করে। যদি কেও এই ভাষা বুজতে পারে তাহলে ফরেক্স মার্কেট তার জন্য সহজ হবে। আর যদি কেও এর ভাষা না বুজে তাহলে তার জন্য এই মার্কেট অনেক জটিল হবে। ফরেক্স এক্সপার্টদের মত অনুসারে, “যারা এই মার্কেটের ভাষা বুজবে না তাদের জন্য এই মার্কেটে নয়। “

তবে চিন্তার কিছু নেই, এই মার্কেটের ভাষা বোজা খুব কঠিন কিছু না। এর জন্য আপনাকে প্রচুর সময় দিতে হবে। দিতে হবে ধর্যের পরীক্ষা। এখন বলবেন ‘রাসু ভাই ‘ কিভাবে শিখতে পারি এই ভাষা ? আপনাকে একটা ছোট উদাহরণ দিচ্ছি, ধরে নিন আপনি একজন বাংলা ভাষী আপনি ইংরেজি ভাষা বুজেন না। এখন আপনাকে যদি আমেরিকাতে পাঠানো হয় তাহলে আপনি কি করবেন। সেখানে তো সবাই ইংরেজিতে কথা বলে। আপনি তো তাদের ভাষা বুজবেন না। আর স্বাভাবিক সেখানে আপনার বসবাস করা কঠিন হবে। কি তাইতো ? এখন যদি আপনি সেখানে থাকতে চান তাহলে আপনাকে ধোর্য ধরে সেখানকার ভাষা শিখতে হবে। তার জন্য একটা নিদৃষ্ট সময় লাগবে।

বিশেষ কিছু ক্যান্ডেলস্ট্রিক চার্ট প্যাটার্ন যেগুলো বিভিন্ন তথ্য দিয়ে থাকে।

ঠিক একই ভাবে আপনাকে মার্কেটের সঙ্গে সময় দিতে হবে। মার্কেটের ভাষা বুজতে হবে। আমি আপনাকে মার্কেটর ভাষা বুজতে সর্বাত্মক চেষ্টা করবো। তবে বুজতে হবে আপনাকেই। সময় না দিলে এই ভাষা কখনো বোজা সম্ভব না। এজন্য ধর্যের কথা বার বার বলছি। আমি আপনাকে বিভিন্ন ক্যান্ডেলের ভাষা ধারণা দিবো। সেই সাথে বেশ কিছু প্রফিটেবল স্ট্রাটেজি শেয়ার করবো। যেগুলো বিশ্বের বড় বড় ফরেক্স এক্সপার্টরা ব্যবহার করে। সাথে কিছু ইনডিকেটর নিয়ে আলোচনা করবো যা মার্কেটের ভাষাকে বুজতে গুরুত্ব বাড়িয়ে দিবে এবং সব শেষে আমার ব্যবহারিত চার্ট ডিজাইন ও ইনডিকেটর শেয়ার করবো।

একটা কথা বিশেষ ভাবে মনে রাখবেন, অন্যের সিগন্যাল বা ট্রেনিং সেন্টার থেকে ভালো কিছু আশা না করাই উত্তম। আপনাদের উৎসাহ পেলে ইনশআল্লাহ আমি আপনাদের ফরেক্স মার্কেটের যাবতীয় বিষয় বুজিয়ে দিবো। যা বিশ্লেষণ করে আপনারা সকলেই একটা ভালো ফলাফল পাবেন বলে আমি আশাবাদী। এতে আপনার জীবনও বদলে যেতে পারে। আমার পোস্টি কেমন লাগলো তা জানিয়ে একটি কমেন্ট করতে পারেন। পোস্টি সম্পূর্ণ শেষ করার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply